অন্যরকম একটা ঈদ– Action: Eid4Every1 2011

অ্যাকশনঃ পেঁয়াজু-বেগুনী ২০১১-তে অংশগ্রহন তিনদিন পর একটা কল পেলাম অ্যাকশন লিডার মিঠু ভাইয়ার কাছ থেকে। ভাইয়া বললেন,“ পিয়া, ২৪ তারিখ মিটিং-এ যেতে হবে।” যথাদিনে তুমুল বৃষ্টি উপেক্ষা করে মিটিং-এ পৌঁছে যা বুঝলাম, Eid4Every1 এর ইভেন্ট করছি আমরা! :-)

ভয়, আশঙ্কা আর অনেকটুকু উত্তেজনা নিয়ে কাজ শুরু করলাম আমরা। বেশ কয়েকদিন জোর অভিযান চালিয়ে আমাদেরই বন্ধু সাইফের সাহায্যে মোহাম্মাদপুরে সুবিধা-বঞ্চিত ও কর্মজীবী শিশুদের একটা স্কুল খুঁজে পেলাম। স্কুলটি চলছে সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট সার্ভিসেস এবং ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সহায়তায়- যেখানে ৯০ জন শিশু কাজের পাশাপাশি পড়াশোনা করে থাকে। এরপর আমরা একটা দিন ঠিক করে ফেললাম- ৯ সেপ্টেম্বর। এবার শুরু হল প্রস্তুতি—খাবার কী হবে, কী গিফট দিব, বাচ্চাদের কাপড় কোথা থেকে কিনব! এরপর ৬ সেপ্টেম্বর মোহাম্মাদপুর এ একটা মিটিং করলাম সকল অ্যাকশনিয়ারদের নিয়ে ( জায়গার জন্য মিম্বোকে ধন্যবাদ!) এবং সব কাজ ভাগাভাগি করে নিলাম।

অবশেষে আসলো সেই বহুল প্রতীক্ষিত দিন- ৯ সেপ্টেম্বর ২০১১। আমার বা শোভন কারোরই উত্তেজনায় রাতে ঘুম হয়নি, তাই সময়মত পৌঁছে আমরা অনুষ্ঠান শুরু করে দিলাম। আমি বাচ্চাদের স্কুলে আর Actioneer তানযিল শোভন গভর্মেন্ট বয়েজ-এর অডিটরিয়ামে। বেশ ভালই চলছিল সব, কিন্তু কিছুক্ষন পর সেই স্কুলের এক্স-ডাইরেক্টর এসে জানালেন বাচ্চাদের দু’ভাগে ভাগ করা চলবেনা। আমাদের প্রথমে মত না থাকলেও পরে বাধ্য হয়ে মেনে নিলাম। আমি আমার গ্রুপের বাচ্চাদের নিয়ে অ্যাকশনিয়ারসহ একটা ট্রেন বানিয়ে হেঁটে চললাম মোহাম্মদপুর গভঃ বয়েয স্কুল অডিটরিয়ামে! এরপর আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে সবকিছু ঠিকঠাক চলল। আমরা বাচ্চাদের উপহার দিলাম একটা করে স্টেশনারী সেট, টি-শার্ট এবং খেলনা/ চুলের ক্লিপ। ওরা আমাদের সাথে খেলল, গল্প শুনল- এবং শুনাল, কার্টুন দেখল, ডকুমেন্টারী দেখলো আর নিজেদের হাতের ছাপ দিয়ে বাংলাদেশের বিশাল দুইটি ম্যাপ তৈরি করল! ওদের নাস্তায় ছিল সিঙ্গারা, পেঁয়াজু আর দুপুরের খাবার ছিল তেহারী- যা পেয়ে ওরা অনেক খুশি হল।সবশেষে দুপুর দেড়টার দিকে যখন সবগুলো দাঁত দেখিয়ে হাসতে হাসতে ওরা চলে যাচ্ছিল, তখন আমার মনে হতে লাগল, সত্যি আমাদের অ্যাকশন শেষ?! আরেকটিবার কি করা যায়না?! আর যখন চলে যাওয়ার সময় সব অ্যাকশনিয়াররা বলছিল যে তারা সত্যি খুব উপভোগ করেছে সারাদিন, তখন মনে হচ্ছিল আর কী চাই?!! অ্যাকশনিয়ারদের আর বাচ্চাদের মুখের হাসি- আমার দিনটাকেই যেন সার্থক করে তুলল!

এই ছিল আমাদের Action: Eid4Every1 2011, যা আমার আর শোভনের পক্ষে কখনই করা সম্ভব হতনা যদি না প্রিতম ভাইয়া, সেগুফতা আপু, মিঠু ভাইয়া, শোভন, সাইফ, অনিন্দ্য, আসিফ, অনু আপু, মারজান, নিঝুম, রাতুল, মিম্বো, কায়েস,আপন, তুরস, মিশু, সামি ভাইয়া, অদিতি আপু, পিউলি, রিফায়েত, তমরি এবং অন্যান্য অ্যাকশনিয়ার -মনিষা, উপমা আপু, মাইশা, নুসরাত আপু, জামি, শুভ, অরপা, অলি ভাইয়া,কারজন ভাইয়া, প্রিয়, তমাল, রিফাত, সাকিব, রানা, তাহসিন, মোহনা, তৌহিদ, তৌসিফ ভাইয়া, কুলসুম আপু- কে পাশে না পেতাম ( যাদের নাম দিতে পারিনি, তাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী, কিন্তু মন্তব্যে নাম লিখে গেলে আমি এখানে লিখতে পারবো :D:D ) সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এবারের ঈদের খুশী স্মরণীয় হয়ে থাকলো সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট সার্ভিসেস (CDS) এর নব্বই শিশুর কাছে … আরো বেশী অনুপ্রেরণা হয়ে থাকলো প্রায় অর্ধ-শত অ্যাকশনিয়ারের কাছেও! ভবিষ্যতের বাংলাদেশ এর স্থপতি যখন ওরা হবে, তখন যেন একটিও এমন শিশু না থাকে, লোভ আর দূর্নীতির জন্য বঞ্চিত শ্রেনী যেন সব সময়ই বঞ্চিত না থাকে বরং উদ্দীপ্ত নতুন বাংলাদেশ হয় যেন সবার জন্য, সেই জন্য কাজ করবে একশনিয়াররা, এখন থেকেই সেই চর্চা তাই শুরু হলো!

৯ আগস্ট কমিউনিটিঅ্যাকশন- এর সাথে আমার পরিচয়, আর ৯ সেপ্টেম্বর প্রথম অ্যাকশন লিড করা- জীবনটাই যেন পাল্টে গেল!! :D

Smile! Even a Smile is Charity :) :D

This entry was posted in Action: Eid for Every One, CommunityAction. Bookmark the permalink.

10 Responses to অন্যরকম একটা ঈদ– Action: Eid4Every1 2011

  1. Shovon Tanzil says:

    shotti e mone hocce din ta jodi shes na hoto tahole shob theke valo hoto..!!Ar ami o bolte chai Jodi PIA er moto akjon thanda mathar think tank amader shobar pase na thakto tahole bacchader jibone chotto akta anonder din amra hoito nao dite partam.. !!aro dhonnobad janate chai Mohammadpur Govt Boys High School er Head sir ke..!!sir er help sara amra konovabei ek sathe ato boro akta kaj korte partam na..ar amar abong piar shob Actioneers bondhu der ke amader pase thakar jonno oshonkho dhonnobad janai!!!ar amader vul ke khoma shundor dristite dekhar jonno shobar kase abodon o janai..:)..aita allmost amader shobar e first action cilo..shejonno na chaileo onek vul hoye gese..!!amra inshallah next bar aro valo kore korbo..!!shei jonno shobar kase doa o chai..!!Thanx everybody!!

  2. Saif Rahman says:

    আর্টিকেল টা পড়ে অনেক বেশি ভাল লাগলো। এটা আসলেও সত্য যে এরকম একটা চমৎকার কাজের পর আমরা সকলেই ভবিষ্যতে আরও এ ধরনের কাজ করার জন্য অনুপ্রাণিত ও আগ্রহী হব। সকলকে ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করতে চাই না, শুধু বলতে চাই আপনারা আমাদের সহযোগিতা করবেন যাতে আমরাই হতে পারি যুব সমাজের আদর্শ।

  3. Irin Binte Azad Anu says:

    That was really an awesome experience with some awesome brothers & sisters! The smiles on both actioneers & children’s face were d most divine thing we could ever have! & the smiles wasn’t only at the end of the day, it was all day long! Thanks a lot to the Community Action for building such platform & bringing actioneers of different institutes & institutions together…. really…. Even a Smile is Charity :)

  4. Gazi Sakir says:

    সুন্দর লিখেছ আপু………:)

  5. Farah Nusrat says:

    Onek valo likhecho Pia..ar sotti sotti ekta josssss din ketechilo amader seidin..jiboner ekta din oi bachchagulir jonne dite pere khub valo legeche..darun ekta oviggotamoy sriti hoye thakbe dinta..chai erokom aro din asuk :)

  6. Dewan Farhat AL Jami says:

    Dinta asholeo beshi joss chilo!! It was another gr8 event of Community Action…..I enjoyed a lotttttttt wid dose kids!!:D They were jst Awsum!! And nothing 2 say about da volunteers….da credits of dis success goes 2 everyone…:)

  7. Ratul ashraf says:

    Ami prarthona kori jeno airokom EID4 EVERYONE program ar na hoy. Coz ami kono subidha bonchito sishu k dekhte chai na

  8. Ratul ashraf says:

    Ami chai kono shishui jate subidha bonchito na thake. Tara jno alokito prithi dekhte pare. Amra jno tader bondhu hisebe kache pai

  9. sakib says:

    ভালো একটা কাজ করেছিস। আশা করি এই ধরনের কাজ আরও হবে। কাজের সাথে যুক্ত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ এবং শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

  10. Rifayath Inteshar Chowdhury says:

    : ]

Leave a Reply to Irin Binte Azad Anu Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *