মেহেদি ম্যাজিক মজারু

Sadia Rahman“আজকে মেহেন্দি লাগানোর এক পর্যায়ে একটা পিচ্চি আমাকে বলল “আপু A B C D লিখে দেন”…so i had to find a place in his little hand and write A to Z in it…যে কয়টা বাচ্চাকে নাম জিজ্ঞেস করসি, সবাই সুন্দর করে বানান করে করে বলসে…মনে হচ্ছিলো সারাদিন ওদেরকে মেহেন্দি লাগাইতেই থাকি…কপালের টিপ থেকে শুরু করে হাতের দুইপাশ ভরে ভরে মেহেন্দি লাগায় কি যে খুশি একেকজন !!!”

ছোট ছোট নরম হাতে মেহেদি পরানো আর সেই হাতের ছোট্ট মালিকদের সাথে সময় কাটানো – এই নিয়ে প্রতি ঈদের “অ্যাকশনঃ মেহেদি ম্যাজিক”! এই ছোট্ট মালিকরা একটু আলাদা- তারা পথশিশু, ঈদে মেহেদি কিনে হাত সাজিয়ে আনন্দ করা হয়তো তাদের হতো না। তাই বলে কি তাদের স্বপ্ন বা অনুভূতিগুলো আলাদা? না; আর তাই এই শিশুদের মুখে একটু হাসি ফোটানোর চেষ্টা নিয়েই এই অ্যাকশন। বরাবরের মত ২০১২ সালের “অ্যাকশনঃ মেহেদি ম্যাজিক”-ও সম্পন্ন হয়ে গেল অগাস্টের ৮ তারিখে। কিন্তু এই অ্যাকশন শুধু ঐ শিশুদেরকেই নির্মল আনন্দ দিয়েছে তা নয়, অ্যাকশনিয়াররাও কাটিয়েছে হাসি আর আনন্দের স্মৃতি ভরপুর দারুণ এক সময়। অ্যাকশনে অংশ নিয়ে ফেরার পর অ্যাকশনিয়ারদের জানানো উচ্ছ্বসিত মজার অভিজ্ঞতা নিয়ে এই লেখা :-)

Rezwana Mou:
Onkdin por eto valo laglo kichu kore. .nd thanks to the authority. . i think um wid u next all times . . whenevr u arrange smthing. . id love to join u

Saidatun Nesa:
amk ak picchi bollo z ”’er por amare na diya dilee ami apnare noramu, kao re dte dimu na…”’ thn arekjon bollo amr name, amr ma er name, amar vhai er name likha den,sathe eid mubarak ooo…

Dhara Islam Mallik:
পুরা হাতে ডিজাইন করিয়ে নেওয়ার পর এক পিচ্চির হাতের যে অতি ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র অংশ বাকি আছে সেখানে সে ‘আকাশ’ লিখতে ইচ্ছুক! সাথে সাথে পাশের থেকে আরেকজন বলে উঠল, “দ্যাখসেন আপু, অয় পেরেম করে!”

Mohita Nath:
Had a really good time with the kids !
The Dhanmondi team of Actioneers, cheers ! XD

Shabnam Basera Rishta:
just came back from AMM mirpur which held at Ahsania mission orphanage and school

 

:)

and suddenly it is so quiet. kids constant talks and laughs were like birds chirping. Passed great time

Antara Tithi:
baccha der demand j koto prokar o ki ki hote pare ta aj bujlam oneke nijer nam likhiye khushi, abar karo mehedi dear por mone poreche j eid er mehedi te “eid mubarak” lekha hoy nai.. r design nie shochetonota to bishal.. ak baccha tar hat e ma er nam likheche, karo abar hat e “love” na akle hobei na.. event er EPIC part holo- ak picchi jaoar shomoy khali tube cheye nie gelo bie er por bou k dibe bole. shesh mesh din ta valoi gelo

 

Nazmy Natia:
Alhamdulillah! We pulled off the event successfully ! Needless to say, the awesome participants of Muhammadpur rocked the area! We put henna on 100 and 10 hands and distributed chocolates among 200 kids . Had great time with street children, had fun while working together and yah Action Mehendi Magic rocks. Thank you everyone for everything you did today

 

O_o :)

Iker Tanny Madridista:
Its the greatest day on earth. Laughter , singing , posing for the photographs… Its more than anything… Its more colourful than the colours of mehendi… We was at dhaka ahsania mission orphanage from 10 am to 1:45 pm. We had a nice action : mehendi magic 2012. Not only mehendi , but also they had shown us the creations of their creative minds. The paintings on their walls , wind charmers made by them amazzzzzed us. We were just . Thanks to the 13 actioneers and others. Thanks for being with us..

 

Zarin Tasnim Joyeeta:
I consider every single smile as a success of today’s event. We laughed, we gossiped with the little angles. Also they complained about our poor skills of designing – “আপু এইডা তো গোলাপ ফুল হয় নাই। ” The bottom line is, it was an awesome experience.

Arin Ahmed Binty:
অন্যরকম এক ভালোলাগা কাজ করছে Action: Mehndi Magic 2012 অংশগ্রহন করতে পেরে…..ছোট ছোট বাচ্চাদের আনন্দ দেখার মত ছিল……একটা ছোট ঘটনা বলি..আমরা যখন সবাই অপেক্ষা করছি একসাথে হবার জন্য তখন দুটা ছোট ছেলে এসে হাত পাতল টাকার জন্য..আমরা টাকা না দিয়ে মেহেদি প্যাকেট খুললাম.তারাতো অবাক..কিন্তু আলম এবং আলামিন কে কিছুক্ষন অপেক্ষা করতে হল কারন পিন এবং টিস্যু পেপারের অভাবে কাজ শুরু করতে পারছিলাম না…সবাই আসার পরে ঠিক হল বালুর মাঠে গিয়েই একবারে কাজ শুরু করব। দেখলাম পিছু নিয়েছে তারা দুজন।বালুর মাঠে যাবার পরে একঝাক ছেলেমেয়ে ঘিরে ধরল আমাদের…আমি আলম আর আলামিন বলে ডাকলে তারা এগিয়ে এল…সবার আগে তাদের কেই মেহেদি পরিয়ে দিলাম…
তারা হাত বারিয়ে দিয়েছিল টাকার জন্য কিন্তু ফেরত পেল মেহেদি রঙ এ রাঙ্গানো হাত…আর আমরা পেলাম অনেক মুল্যবান কিছু হাসি………

 

Action: Mehendi Magic is going on... :)

A day well spent. Fun it was to do the henna design on those soft little hands Though some designs looked more like circuits, resistors, diodes etc, those kids just really loved it!! We actioneers were so happy to see them smiling and jumping! ; those little angels kept on cheering us all :’)

Armin Zaman Khan:
13 volunteers turned for the Dhanmondi area and they were awesome beyond my expectation! The kids just couldn’t stop coming back again and again for filling up their palms and hands with some color!
And guess what, we also had a BHAIYA coming up to us randomly and requesting us to allow him to volunteer and paint the kids’ hands. It was lovely!

সব একত্র করে বলতে গেলে এবারের “অ্যাকশনঃ মেহেদি ম্যাজিক ২০১২” – এর অ্যাকশন লিডার জারিফার কথাটিই আসলে সবার মনের কথা-

Zarifa Zakaria:
সব কয়টা এরিয়া থেকে অ্যাকশনিয়ারদের এত খুশি খুশি গল্প শুনতে খুবি ভালো লাগছে! বোঝাই যাচ্ছে প্রত্যেকটা এরিয়াতে খুব সুন্দরভাবে শেষ হয়েছে আজকের Action: Mehendi Magic!! বাচ্চাদের সাথে মেহেদির সাথে সাথে গল্প, গান, খেলাধূলা সব মিলিয়ে অসাধারণ একটা দিন গেল!! ঈদের একদিন আগেই পুরোদস্তুর ঈদের আনন্দ করে ফেললাম সবাই  :-)

About Samiha Samrose Mumu

Actioneer Samiha Samrose Mumu is currently studying Computer Science & Engineering in her undergrad at BUET
This entry was posted in Action: Mehndi Magic, CommunityAction and tagged , , . Bookmark the permalink.

4 Responses to মেহেদি ম্যাজিক মজারু

  1. Zarifa says:

    eto shundor kore compile korecho Mumu! Pore shediner motoi bhalo lagche :)

    • Samiha Samrose Mumu says:

      ধন্যবাদ জারিফা :)
      এত দারুণ একটা ইভেন্টের সবকিছু এত সুন্দরভাবে গোছানোর জন্য তোমাকেও অনেক অনেক অভিবাদন :)

  2. সোহায়লা says:

    আমার অভিজ্ঞতা মনে পরে গেলো!
    সেটা মনে হয় ২০০৯ সাল, প্রথম মেহেদি ম্যাজিক :p একমাত্র একশনিয়ার আমি! ( আসলে ২০১০ থেকে অফিশিয়ালি শুরু হয়, ২০০৯ এ আইডিয়া জেনারেট করা হইসিলো আর কী! )
    সে এক বিশাল লাইন। (১৫-১৬ জনের আসলে :p)
    আর আমিও প্রতিভা দেখানোর নিমিত্তে হাত ভরে আল্পনা আকতেসি! অনেক সময় লেগে যাচ্ছিল তাই…
    যখনি কারো হাত আঁকা শেষ হয়, সবাই হাততালি দেয়, আর একটা ছেলে প্রতিবারই বিভিন্ন স্টাইলে ব্রেকড্যান্স দিয়ে দেয়!!
    তার পরে যখন মোবাইলে ছবি তোলার আশায় দাড়াতে বলি, তাদের পোয দেখে বাক্যহারা হয়ে যাই!!

    • Samiha Samrose Mumu says:

      একদম ঠিক বলেছেন আপু, বাচ্চাগুলোর হাতে মেহেদি লাগানোর পর ওদের হাসাহাসি লাফালাফি দেখে কী যে মজা লাগে :D :D

      ২০০৯-এর এই আইডিয়া থেকে কত কত মানুষের মুখে হাসি ফুটছে… নিজেকে এর অংশ ভাবতে সত্যি দারুণ ভালো লাগে ^_^

Leave a Reply to সোহায়লা Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *